1. admin@protidineralo.news : admin :
শনিবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২১, ০৪:৫৭ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
সুন্দরগঞ্জে নারী নির্যাতন রোধে মানববন্ধন  সুন্দরগঞ্জে দুই মাদক ব্যবসায়ির জেল ও জরিমানা তাড়াশে অনগ্রসর ক্ষুদ্র নৃ গোষ্ঠীর আর্থ সামাজিক ও মানোন্নয়নের লক্ষে উন্নত জাতের ক্রসব্রিড বকনা প্যাকেজ এর অনুদান বিতরণ সুন্দরগঞ্জে আগুনে পুড়ল পাঁচ লাখ টাকার সম্পদ তাড়াশ বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ শাখা ছাত্রলীগের উদ্যোগে পরীক্ষার্থীদের মাঝে মাস্ক বিতরণ কালীগঞ্জে ভোট কারচুপির অভিযোগ, দু’টি কেন্দ্র থেকে আরও ২১ টি মুড়ি বই উদ্ধার! নারী ও শিশু নির্যাতন,পরকিয়া,যৌতুক এবং পর্নোগ্রাফিসহ ৪ মামলার আসামী সওজের প্রকৌশলী শৈলকুপার আলোচিত সেই টিটু গ্রেপ্তার ঝিনাইদহের পুলিশ স্বামীর পরকীয়ায় অসহায় স্ত্রী-সন্তান! তাড়াশে অভ্যন্তরীণ আমন ধান ও চাল সংগ্রহ কর্ম সূচির উদ্বোধন করলেন ইউএনও মেজবাউল করিম মহেশপুরে গরুর সঙ্গে মটরসাইকেলের ধাক্কায় মুক্তিযোদ্ধা নিহত!

তাড়াশে বিধবা নারীকে মারপিট করে বাড়ি ছাড়া করলো দেবররা

প্রশাসন
  • সময় : শনিবার, ২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২১
  • ১১৩ বার পঠিত

সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি:

সিরাজগঞ্জের তাড়াশে এক নিঃসন্তান বিধবাকে মারপিট করে বাড়িছাড়া করেছেন শ্বশুরবাড়ির স্বজনেরা। বাড়ি-ঘড় ছাড়া হয়ে ঐ বিধবা আশ্রয় নিয়েছেন বসতভিটার গাছতলায়। অমানবিক এ ঘটনায় বিক্ষুদ্ধ হয়ে উঠেছেন স্থানীয়রা।
সরেজমিন ঘুড়ে ঐ বিধবা নারী, তার স্বজন ও স্থানীয়দের সাথে কথা বলে জানা যায়, জেলার তাড়াশ উপজেলার মাধাইনগড় ইউনিয়নের মাদারজানি গ্রামের কৃষক সাইফুল ইসলাম নিসন্তান অবস্থায় গত বছরের ২৮’শে ফেব্রুয়ারি হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যায়। এর আগে দীর্ঘদিন অসুস্থ থাকা অবস্থায় তার সেবা-যত্ন করেন তার স্ত্রী বুলবুলি বেগম। নিঃসন্তান দম্পত্তি হওয়ায় মৃত্যুর পূর্বে সাইফুল ইসলাম তার স্ত্রী বুলবুলি বেগমের নামে নিজ অংশের প্রায় তিন বিঘা ফসলি জমি ও বসতভিটা রেজিস্ট্রি করে দেয়। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠে সাইফুল ইসলামের ছোট তিনভাইসহ স্বজনেরা। ফলশ্রুতিতে গত বছরের ২৮’শে ফেব্রুয়ারি সাইফুল ইসলাম মারা যাবার পর থেকেই বিভিন্নভাবে বুলবুলি বেগমের উপর নির্যাতন শুরু করে তার তিন দেবর ছানোয়ার হোসেন, সুলতান মাহমুদ ও শহিদুল ইসলাম। একপর্যায়ে চলতি মাসের ১৩ তারিখে জোড়পূর্বক বুলবুলি বেগমের বৃবহৃত ঘড়টিতে তালা ঝুলিয়ে তাকে মারপিট করে বাড়িছাড়া করা হয়। ঘড়-বাড়ি ছাড়া হওয়ার পর স্বজন ও প্রতিবেশীদের সহায়তায় বাড়ির আঙ্গিনায় একটি ঘড় উত্তোলন করার চেষ্টা করলে তাতেও বাধ সাধেন তার দেবরেরা। বাধ্য হয়ে বাড়ির আঙ্গিনার একটি গাছতলায় অবস্থান নেন বিধবা বুলবুলি। বিষয়টি অবগত করা হয় তাড়াশ থানা পুলিশকেও। কিন্তু অদৃশ্য কারনে এর কোন সুরাহা হয়নি।
ঘড়ছাড়া বুলবুলি বেগম জানান, আমি নিসন্তান, বিধবা নারী। গত দুই সপ্তাহ যাবৎ সারাদিন গাছতলায় বসে থাকি, রাতের বেলায় প্রতিবেশীদের বাড়িতে আশ্রয় নিতে হয়। আমার স্বামী মারা যাবার পর শ্বশুরবাড়ির স্বজনেরা আমাকে পর করে দিয়ে বাড়িছাড়া করেছে। এখন আমার নিজ নামে রেজিস্ট্রিকৃত জমিতে ঘড় উত্তোলন করতে দিচ্ছে না। বারবার থানা পুলিশের কাছে গিয়েও কোন সহাযোগিতা পাচ্ছি না। বাকি জীবন আমি কোথায় কাটাবো? অভিযোগ বিষয়ে কথা বলার জন্য ঐ বাড়িতে গেলে বুলবুলি বেগমের ছোট জা নাছিমা বেগম জানান, বুলবুলি বেগম শ্বশুরবাড়ির লোকজনের সিদ্ধান্ত না মানায় তাকে বাড়ি থেকে বেড় করে দেয়া হয়েছে। তার নিজ নামে রেজিস্ট্রি করা জমি আছে সেখানে গিয়ে সে ঘড় উত্তোলন করুক। এই বাড়িতে তার কোন অংশ নেই, অতএব তার এখানে বসবাস করারও কোন অধিকার নেই। বিষয়টি বারবার মিমাংসার উদ্যেগ নেয়া মাদারজানি গ্রামের প্রবীন মুরুব্বি ঠান্ডু মিয়া বলেন, বিষয়টি অমানবিক। সাইফুল ইসলামের মৃত্যুর পর থেকেই তার বিধবা স্ত্রীকে নানাভাবে নির্যাতন করা হচ্ছে। গ্রামবাসি বেশ কয়েক দফা বিষয়টি মিমাংসার উদ্যেগ নিলেও সাইফুল ইসলামের ছোট ভাই ছানোয়ার হোসেন, সুলতান মাহমুদ ও শহিদুল ইসলাম গ্রামবাসির সিদ্ধান্তের সাথে একমত হয়নি। এখনতো নিসন্তান ঐ বিধবাকে ঘড়-বাড়ি ছাড়া করেছে। তাড়াশ থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ ফজলে আশিক ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, অমানবিক এই বিষয়টির সমাধানে দ্রুত ব্যাবস্থা নেয়া হবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর