1. admin@protidineralo.news : admin :
মঙ্গলবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৪:৩৯ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
নন্দীগ্রাম মনসুর হোসেন ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে সীমাহীন দুর্নীতিও নানা অনিয়মের অভিযোগ তাড়াশে অভিমান করে আত্মহত্যা তাড়াশে রাজমিস্ত্রিদের ৪দিন ব্যাপী প্রশিক্ষণ উদ্বোধন পলাশবাড়ীর কিশোরগাড়ী ইউপি চেয়ারম্যান রিন্টুসহ ৬ জন জুয়া খেলা অবস্থায় আটক পলাশবাড়ীতে সড়কের পাশে ড্রেন নির্মাণে বৈষম্যের স্বীকার হয়ে অর্ধশতাধিক ব্যবসায়ি নিঃস্ব নন্দীগ্রামে কারাম উৎসব উদযাপিত ঝিনাইদহে আইন-শৃঙ্খলা বিষয়ক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত ঝিনাইদহে আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে ঘর নির্মাণ, রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের আশংকা! কালীগঞ্জে হোটেলে ফেলে যাওয়া বৃদ্ধার পরিচয় মিলেছে ঝিনাইদহ ভুয়া পুলিশের কুকার গ্রেফতার

ঝিনাইদহে বিশিষ্ট শিল্পী বাউল মতলেব ফকিরের নেতৃত্বে জাতীয় শোক দিবস পালনের পর বাউল সঙ্গীত ও পালাগান অনুষ্ঠিত

প্রশাসন
  • সময় : মঙ্গলবার, ৩১ আগস্ট, ২০২১
  • ৫ বার পঠিত

জাহিদুর রহমান তারিক, ঝিনাইদহ-

৩০শে আগস্ট সোমবার অনুষ্ঠানের প্রথম দিনে ঝিনাইদহের বিশিষ্ট বাউল শিল্পী মতলেব ফকিরের নেতৃত্বে তার নিজ বাসা গয়েশপুরে জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা ও সাধুসংঘ অনুষ্ঠান যথাযোগ্য মর্যাদায় পালিত হয়েছে। মাসব্যাপী কর্মসূচির অংশ হিসেবে লালন চর্চা ও গবেষণা ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে বাউল মতলেব ফকিরের নেতৃত্বে ও আয়োজনে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর ৪৬তম শাহাদাত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উদযাপন উপলক্ষে আলোচনা সভা, দোয়া মাহফিল, কাঙ্গালীভোজের আয়োজনসহ বাউল সঙ্গীত ও পালাগান করা হয়। অনুষ্ঠানের দ্বিতীয় দিনে ঝিনাইদহ শহরের মুজিব চত্বর এলাকার কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে পুষ্পমাল্য অর্পণ করে শ্রদ্ধা জানানো হয়। এসময় জেলার লালন চর্চা ও গবেষণা ফাউন্ডেশনের বাউল সাধুদের জাতীয় শোক দিবসের কালো ব্যাচ পরিয়ে জাতীয় শোক দিবস সমাপনী অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অ্যাড. আঃ রশিদ। সেসময় বাউল সাধুদের সভাপতি ও বিশিষ্ট বাউল শিল্পী মতলেব ফকির বলেন, ঝিনাইদহ জেলার সিনিয়র বাউল শিল্পী ও সাধুরা অত্যন্ত অবহেলিত ও নির্যাতিত। তাদের নেই কোন প্রকার আয়ের উৎস। তারা যেন সমাজের এক প্রকারের বোঝা হয়ে আছে। তিনি বলেন, আমি জাতীয় শোক দিবসের এই অনুষ্ঠানের মাধ্যমে মাননীয় শেখ হাসিনাকে প্রত্যন্ত অঞ্চলের অবহেলিত ও নির্যাতিত সিনিয়র বাউল শিল্পী ও সাধুদের ভাতা ও তাদের পূর্ণ পুনর্বাসনের জন্য জোর দাবি করছি। উক্ত শোক দিবস অনুষ্ঠানে জেলার ৬টি উপজেলা থেকে ৩৮জন বাউল শিল্পীসহ বিভিন্ন এলাকা থেকে ছুটে আসা প্রায় ৫শত বাউলদের মধ্যে খাবার বিতরণ করেন মতলেব ফকির। আলোচনা সভা শেষে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আত্মার মাগফেরাত কামনা করে দোয়া অনুষ্ঠিত হয় ও জেলার বিশিষ্ট শিল্পীদের নিয়ে বাউল সঙ্গিত ও পালাগান অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন বিশিষ্ট কন্ঠের অধিকারী আলমগীর হোসেন। উল্লেখ্য বিশিষ্ট বাউল শিল্পী মতলেব ফকিরের নেতৃত্বে এবার নিয়ে মোট ৩৮তম জাতীয় শোক দিবস পালন করা সুসম্পন্ন হল।

সংবাদটি শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর