1. admin@protidineralo.news : admin :
বৃহস্পতিবার, ২৭ জানুয়ারী ২০২২, ০৮:৪৮ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
নন্দীগ্রাম পৌরসভার ৯টি ওয়ার্ডে ৮লক্ষ টাকা ব্যয়ে পিট স্লাব বিতরন করলেন পৌর মেয়র নন্দীগ্রাম থানা পুলিশের মাদকবিরোধী অভিযানে গ্রেফতার ৩ শৈলকুপায় কোটিপতি স্কুল শিক্ষিকার বিরুদ্ধে কর ফাঁকির অভিযোগ ঝিনাইদহে গভীর রাতে শীতার্তদের মাঝে জেলা জজ’র কম্বল বিতরন র‌্যাব ৬’র অভিযানে শৈলকুপায় আলোচিত হত্যা মামলার আসামি গ্রেফতার শৈলকুপায় দুই আ’লীগ নেতা বহিস্কার কৃষিতে সম্ভাবনাময় গাইবান্ধার চরাঞ্চল    _______জেলা প্রশাসক- মো.অলিউর রহমান নন্দীগ্রামে কৃষি সেবা ও প্রযুক্তি সম্প্রসারণে একজন আদনান বাবু কালীগঞ্জে পরাজিত মেম্বর প্রার্থীর লাশ উদ্ধার! সাময়িক বরখাস্তকৃত দুই ব্যাংক কর্মকর্তা ও এক কর্মচারীর বিরুদ্ধে ঝিনাইদহ আদালতে মামলা

মহেশপুরে ছাত্র-ছাত্রীদের বেধড়ক পিটিয়ে প্রধান শিক্ষক পালন করলেন বই উৎসব

প্রশাসন
  • সময় : মঙ্গলবার, ৪ জানুয়ারি, ২০২২
  • ৯ বার পঠিত

স্টাফ রিপোর্টার, ঝিনাইদহ-
করোনার পরিস্থিতির কারণে এ বছরও বই উৎসব হয়নি। তবে নতুন বই বিতরণ কার্যক্রম শুরু হয়েছে শনিবার (১ জানুয়ারী) থেকে। সারাদেশের ন্যায় ঝিনাইদহের মহেশপুরেও প্রতিটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে উৎসব মুখর পরিবেশে শিক্ষার্থীদের হাতে নতুন বই তুলে দেওয়া হয়েছে। কিন্তু বই উৎসবের দিন মহেশপুর উপজেলার ২৯ নং সামান্তা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ঘটে গেল এক নেক্কার জনক ঘটনা। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রধান শিক্ষক এমদাদ জাহিদের বিরুদ্ধে ছাত্র-ছাত্রীদের বেধড়ক মারধরের অভিযোগ উঠেছে। শনিবার সকালে স্কুল চত্তরে বই উৎসবের দিন সকল শিক্ষার্থীরা নতুন বই নিতে স্কুল প্রাঙ্গনে হাজির হয়ে লাইনে দাঁড়িয়ে ছিলেন। লাইন এলোমেলো হলে প্রধান শিক্ষক এমদাদ জাহিদ হঠাৎ উত্তেজিত হয়ে বেতের লাঠি দিয়ে ছাত্র-ছাত্রীদেরকে মারপিট শুরু করেন। শিক্ষকের এমন আচারণে শিক্ষার্থীরা আতঙ্কিত হয়ে পড়ে। আবুল হোসেন নামের এক অভিভাবক বলেন, বছরের প্রথম দিন আমাদের সন্তানরা স্কুলে গিয়েছে আনন্দের সাথে নতুন বই নিতে। কিন্তু স্কুলের প্রধান শিক্ষক নিজেই ছাত্র-ছাত্রীদেরকে পিটিয়েছেন এটা আমরা আশা করিনি। স্কুল ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি শামিম মিয়া বলেন, লাইন এলোমেলো হওয়ার কারণে প্রধান শিক্ষক শিক্ষার্থীদের মারধর করেছে শুনেছি। তবে কোমলমতি শিশুদের অন্যায় হলেও তার মারধর করা উচিত হয়নি। প্রধান শিক্ষক এমদাদ জাহিদ শিক্ষার্থীদের মারধরের বিষয়টি অস্বীকার করে বলেন, নতুন বছরের নতুন বই নিতে আসা শিক্ষার্থীদের লাইনে দাঁড়িয়ে বই নিতে লাঠি হাতে ভয় দেখিয়ে লাইন ঠিক রাখার চেষ্ঠা করেছি মাত্র। উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা আবু হাসান বলেন, বিষয়টি আমি জানতাম না।এবিষয়ে আমাকে কিছুই বলেননি। আপনাদের মাধ্যমে জানতে পারলাম। তদন্ত পূর্বক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

 

সংবাদটি শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরও খবর